বেস্ট ওয়েবসাইট : যেগুলো প্রত্যেকদিনই দরকার হতে পারে (পর্ব-১)


পর্ব-১

যদিও ইন্টারনেট আর ওয়েব আলাদা জিনিষ—তারপরেও ইন্টারনেটে আমরা বেশিরভাগ সময় ওয়েবেই কাটিয়ে থাকি। নানান কাজের জন্য রয়েছে নানান ওয়েবসাইট গুলো। দুনিয়ার এমন কিছু কিছু ওয়েব সাইট রয়েছে যেগুলো আপনি হয়তো কখনো কল্পনা পর্যন্ত করেন নি। যাই হোক, আজকের আর্টিকেলে এমন কিছু বেস্ট ওয়েবসাইট নিয়ে আলোচনা করবো যেগুলো আজব তো নয়, কিন্তু অনেক কাজের, প্রায় প্রতিনিয়ত বিভিন্ন কাজে আমি এই সাইট গুলোকে ব্যবহার করে থাকি।


আজকে কয়েকটি ভালো ওয়েবসাইট সম্পর্কে আলোচনা করবো যেগুলো আপনার কাজে আসতে পারে। এর মধ্যে কয়েকটি ওয়েবসাইট এতটাই দরকারী যে, আর্টিকেলটি পড়ার পরে সেগুলো হয়ত আপনি প্রত্যেকদিনই ভিজিট করবেন। আবার হতে পারে আপনাদের মধ্যে অনেকেই এই ওয়েবসাইটগুলোর ব্যাপারে আগে থেকেই জানেন এবং আগে থেকে ব্যাবহারও করে আসছেন। নিচে বলা ওয়েবসাইট গুলোর নাম যদি আপনি আগে থেকেই জেনে থাকেন বা আগেই ব্যাবহার করা থাকেন, তাহলে আপনি লেখাটি এড়িয়ে যেতে পারেন। আর যদি না জেনে থাকেন, তাহলে শেষ পর্যন্ত পড়ুন।

আশা করি আজকের আর্টিকেল থেকে আপনি অন্তত ভালো কয়েকটি ওয়েবসাইটের নাম জানতে পারবেন যেগুলো আপনার ভবিষ্যতে দরকার হতে পারে। তো আর কথা না বাড়িয়ে, চলুন শুরু করা যাক এই সিরিজের প্রথম পর্ব


Uploadfiles.io

আপনাদের মধ্যে অনেকেই হয়ত এই সাইটটি সম্পর্কে জানেন এবং এটি ব্যাবহারও করেন। যাইহোক, যদি না জেনে থাকেন , তাহলে বলি। এটা আমার মতে বেস্ট ফাইল শেয়ারিং ওয়েবসাইট। এখানে আপনি যে কারো সাথে ফাইল শেয়ার করতে পারবেন। এই সাইটটিতে আপনি সর্বোচ্চ ৫ জিবি সাইজের একটি বা একটির অধিক ফাইল আপলোড করতে পারবেন কোনরকম স্পেস কেনা বা অ্যাকাউন্ট করা ছাড়াই।

মনে রাখতে হবে, আপনি সাধারণ ইউজার হলে আপনি যতগুলো ফাইলই আপলোড করেন, সেগুলোর সর্বমোট সাইজ ৫ জিবির ওপরে  হওয়া যাবে না। ৫ জিবির ওপরে হলে আপনাকে বাকি ফাইলগুলো দ্বিতীয়বার আপলোড করতে হবে আবার। আপলোড করার পরে তারা আপনকে ফাইলটি/ফাইলগুলো ডাউনলোড করার একটি ছোট্ট লিংক দেবে যেটার সাহায্যে আপনার আপলোড করা ফাইলটি যে কেউ পৃথিবীর যেকোনো প্রান্ত থেকে ডাউনলোড করতে পারবে (যাকে আপনি লিংকটি দেবেন)।

আপনি যদি রেজিস্টার করা ইউজার না হন, তাহলে আপনার ফাইলটি সর্বোচ্চ ৩০ দিন পর্যন্ত সার্ভারে থাকবে এবং ডাউনলোড করা যাবে। আর যদি আপনি ডলার খরচ করে রেজিস্টারড ইউজার হন, তাহলে আপনার ফাইলটি ওই লিংকে সারাজীবন এভেইলেবল করে রাখতে পারবেন। হটাত কারো সাথে ছোট-বড় কোনো ফাইল শেয়ার করার দরকার হলে এই সাইটটির জুড়ি নেই। আর  সাইটটির ইউজার ইন্টারফেসটিও অনেক আকর্ষণীয়।

বেস্ট ওয়েবসাইট

সাইটটি ভিজিট করুন : এখানে

10 Minute Mail

এই ওয়েসাইটের নাম আপনি শুনে থাকবেন। এটি একটি অসাধারণ ওয়েবসাইট। আপনাদের মধ্যে অনেকে হয়ত ব্যাবহারও করেছেন এটি অনেকবার। যারা করেন নি, তারা শুনুন, এটি একটি ডিসপোসেবল টেম্পোরারি ইমেইল সার্ভিস।  সাইটটিতে গেলে আপনি ঠিক ১০ মিনিটের জন্য নিজের একটি সেকেন্ডারি ইমেইল একাউন্ট পাবেন যেখানে আপনি যেকোনো ইমেইল রিসিভ করতে পারবেন।

কোনো ওয়েবসাইটে যদি আপনি নিজের পার্সোনাল ইমেইল অ্যাড্রেস দিয়ে সাইনাপ না করতে চান প্রাইভেসির ভয়ে বা স্প্যাম ইমেইলের ভয়ে, তবে আপনি সহজেই এই টেম্পোরারি ইমেল ব্যাবহার করে সাইনাপ করতে পারবেন এবং ইমেল ভেরিফাইও করতে পারবেন, যেহেতু ওয়েবসাইট থেকে ১০ মিনিটের মধ্যে কোনো ভেরিফিকেশন মেইল আসলে তা আপনার ওই ইমেইলের ইনবক্সেই থাকবে।

বেস্ট ওয়েবসাইট

সাইটটি ভিজিট করুন : এখানে

Virus Total

আপনার কি কখনো কোনো ওয়েবসাইট থেকে কোনো দরকারী ফাইল ডাউনলোড করার সময় সন্দেহ হয়েছে যে আপনি যে ফাইলটি ডাউনলোড করছেন সেটিতে কোনো ম্যালওয়ার নেই তো? ফাইলটি কি ১০০% নিরাপদ? কিন্তু আপনি ভেবেছেন যে এগুলো জানতে হলে আপনাকে আগে ফাইলটি ডাউনলোড করতে হবে এবং তারপরে অ্যান্টিভাইরাস দিয়ে স্ক্যান করতে হবে। কিন্তু না, এই ওয়েবসাইটটির সাহায্যে আপনি ডাউনলোড করার আগেই জানতে পারবেন যে ফাইলটিতে কোনো ধরনের ভাইরাস বা ম্যালওয়ার বা কোনো সন্দেহজনক কিছু আছে কিনা। আপনাকে শুধু ফাইলটির ডাইরেক্ট ডাউনলোড লিংক এই সাইটের সার্চ বারে পেস্ট করতে হবে। এরপরে আপনার ফাইলটি স্ক্যান করে আপনাকে রেজাল্ট দেখানো হবে। যদি সবগুলো রেজাল্টে গ্রিন কালারের টিক মার্ক থাকে তাহলে বুঝবেন যে ফাইলটি নিরাপদ।

বেস্ট ওয়েবসাইট

ফাইল ছাড়াও, আপনার যদি কোনো সাইটের লিংক সন্দেহজনক মনে হয়, তাহলে আপনি সার্চ বারে লিংক পেস্ট করে লিংকটিও টেস্ট করে দেখতে পারেন ভিজিট করার আগে। আর, এই সাইটটির কিন্তু ভাইরাস বা ম্যালওয়ার মেরে ফেলার বা ফিক্স করার কোনো ক্ষমতা নেই। আমি জানিনা এটা যে রেজাল্ট দেয় তা কতটুকু সত্যি বা ভরসাযোগ্য, কিন্তু আমি অনেকবার এখানে ফাইল এবং লিংক  স্ক্যান করেছি এবং অনেকবার ফাইলে ম্যালওয়ার এবং অন্যান্য প্রবলেমও পেয়েছি। যদিও এই সাইটের দেওয়া রেজাল্ট যে ১০০% সত্যি তার নিশ্চয়তা আমি দিতে পারবো না।

সাইটটি ভিজিট করুন : এখানে

A Soft Murmur  

এই সাইটটি ঠিক খুব একটা দরকারী বা প্রয়োজনীয় ওয়েবসাইট নয়, কিন্তু বেশ মজার এবং সুন্দর। আমরা সবসময় সবকিছু দরকার বলেই করিনা। অনেকসময় আমাদের মনের প্রশান্তির জন্যেও অনেককিছু দরকার হয়। এটি ঠিক তেমনই একটি সাইট যা আপনাকে মানসিক শান্তি দেবে। কিভাবে? আচ্ছা, আপনার বৃষ্টির শব্দ ভালো লাগে? আগুনের শব্দ ভালো লাগে? পাখির ডাক , বাতাসের শব্দ এগুলো ভালো লাগে? আমি জানি এই ধরনের শব্দ ভালো লাগেনা এমন মানুষ খুঁজে পাওয়া কঠিন।

এই ওয়েবসাইটে আপনি বিভিন্ন ধরনের শব্দ পাবেন যেগুলো আপনি নিজের ইচ্ছামত প্লে করতে পারেন। বৃষ্টির শব্দ, পাখির ডাক, বাতাসের শব্দ ইত্যাদি অনেক প্রশান্তিমূলক শব্দ পাবেন। আবার চাইলে দুই ধরনের শব্দ একসাথেও প্লে করতে পারবেন। মজার ব্যাপার হচ্ছে, এই শব্দগুলো এতটাই রিয়ালিস্টিক যে, আপনি চোখ বন্ধ করলে বুঝতেই পারবেন না যে এগুলো আসলে ডিজিটাল রেকর্ড করা সাউন্ড। আপনি এই সাইটটি একবার ভিজিট করলে আপনি দ্বিতীয়বার ভিজিট করতে বাধ্য হবেন। হাতে যদি যথেষ্ট ফ্রি টাইম থাকে, তাহলে ঘুরে আসতে পারেন একবার এই সাইটটি থেকে। আমি নিশ্চিতভাবে বলতে পারি, এক্সপেরিয়েন্সটা খারাপ হবেনা।

বেস্ট ওয়েবসাইট সাইটটি ভিজিট করুন : এখানে

Duolingo

এই সাইটটি হয়ত অনেকেই চেনেন। কারণ, এটি অনেক জনপ্রিয় একটি ওয়েবসাইট। এই সাইটটি মূলত নতুন ভাষা শেখার জন্যই তৈরি করা। আপনার যদি ইচ্ছা থেকে থাকে বাইরের দেশের ভাষা রপ্ত করার, তবে এই সাইটটি আপনার জন্য সবথেকে উপকারী হবে। এই ওয়েবসাইট ব্যাবহার করে নতুন ভাষা শিখতে আপনার সাধারণত বই পড়ে শিখলে যতো সময় লাগত, তার থেকে অনেক কম সময় লাগবে। যদিও সময় মূলত নির্ভর করবে আপনার বুদ্ধিমত্তা এবং আপনার লার্নিং স্কিলের ওপরে। আপনাকে শুধু এই সাইটে একটি ফ্রি অ্যাকাউন্ট তৈরি করতে হবে এবং আপনার টার্গেট ল্যাংগুয়েজ সিলেক্ট করে দিতে হবে এবং আপনার সাপ্তাহিক এবং মাসিক গোলস সিলেক্ট করতে হবে। এরপর এখানেই আপনাকে সহজভাবে বোঝানো হবে যে আপনাকে কি কি শিখতে হবে এবং জানতে হবে। মুলত এই সাইটটিইই আপনাকে সম্পূর্ণ গাইড করবে। আপনার যদি নতুন ভাষা শেখার ইচ্ছা থেকে থাকে, তাহলে অবশ্যই এই সাইটটি একবার ঘুরে দেখবেন।

বেস্ট ওয়েবসাইট

সাইটটি ভিজিট করুন : এখানে


তো এগুলোই ছিল কয়েকটি মজার এবং দরকারী ওয়েবসাইট যেগুলো আপনার প্রত্যেকদিনই দরকার হতে পরে। শুধু এই পাঁচটি নয়। এমন আরও অনেক অনেক সাইট আছে। আশা করি, পরবর্তী পর্বে আরও ৫ টি মজার এবং প্রয়োজনীয় সাইট নিয়ে আলোচনা করবো।

আজকের মত এখানেই শেষ করছি। আশা করি আর্টিকেলটি আপনাদের ভালো লেগেছে। কোনো প্রশ্ন  মতামত থাকলে অবশ্যই কমেন্ট করে জানাবেন। ভালো থাকবেন।


Image Credit : Picjumbo Via Pexels.

label, , ,

About the author

আমি সিয়াম। পুরো নাম বলতে হলে, সিয়াম রউফ একান্ত। অনেক ছোটবেলা থেকেই প্রযুক্তির প্রতি আকর্ষণ এবং প্রযুক্তিকে ভালোবাসি। লাইফে টেকনোলজি আমাকে যতটা ইম্প্রেস করেছে ততটা অন্যকিছু কখনো করতে পারেনি। তাই পড়াশোনার পাশাপাশি প্রায় অধিকাংশ সময়ই প্রযুক্তি নিয়ে পড়ে থাকি। আশা করি এখানে আপনাদেরকে প্রযুক্তি বিষয়ক ভালো কিছু আর্টিকেল উপহার দিতে পারব।

9 Comments

  1. সুমন কাইসার November 2, 2017 Reply
    • সিয়াম একান্তAuthor November 12, 2017 Reply
  2. Salam Ratul November 4, 2017 Reply
    • সিয়াম একান্তAuthor November 12, 2017 Reply
  3. Mithu November 4, 2017 Reply
    • সিয়াম একান্তAuthor November 12, 2017 Reply
  4. Fabiola Enrica November 12, 2017 Reply
    • সিয়াম একান্তAuthor November 12, 2017 Reply

Add a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *