টেকহাবস

টেক রাউন্ডআপ ১ : প্রযুক্তির দুনিয়ায় ঘটে যাওয়া সবকিছু [জুন ২০১৮]

প্রথমেই বলি, এটা টেকহাবসে আমাদের নতুন একটি সিরিজ। টেকহাবসে আগে থেকেই বেস্ট ওয়েবসাইট, বেস্ট অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ, ৫ টি সেরা এই তিনটি সিরিজ চালু আছে এবং এগুলো আশা করি আরও অনেকদিন চালু থাকবে। এই সিরিজগুলোর পাশাপাশি আমরা টেক নিউজের জন্য নতুন এই টেক রাউন্ডআপ সিরিজটি চালু করছি, যেখানে প্রত্যেক মাসের সবথেকে ইম্পরট্যান্ট টেক নিউজগুলো নিয়ে আলোচনা করা হবে।

আপনারা অনেকেই হয়তো জানেন যে শুধুমাত্র টেক নিউজ কভার করার জন্য আমাদের আগে থেকেই টেকহাবস নিউজ নামের আলাদা একটি ওয়েবসাইট আছে। আপনি প্রতিদিনের শুধুমাত্র টেক নিউজগুলোর ইনস্ট্যান্ট আপডেট পাওয়ার জন্য সেটি ভিজিট করতে পারেন। আর টেকহাবসের এই টেক রাউন্ডআপ সিরিজটি প্রত্যেক মাসে বা সপ্তাহে একবার করে করা হবে শুধুমাত্র সেই মাসের বা সেই সপ্তাহের ইম্পরট্যান্ট টেক নিউজগুলো কভার করার জন্য।

আমাদের এই টেক রাউন্ডআপ সিরিজগুলোতে পাবেন ওই মাসের বা ঐ সপ্তাহের সবথেকে ইম্পরট্যান্ট টেক নিউজগুলোর একটি উইকলি কিংবা মান্থলি আপডেটস। এই সিরিজগুলোতে স্মার্টফোন লিকস, অ্যানাউন্সমেন্টস, স্পেকস ওভারভিউ, রিউমরস, ইন্টারনেট এবং এইসবকিছু সম্পর্কিত সব ধরনের নতুন টাইমলি আপডেটস পেয়ে যাবেন, যা হতে পারে প্রতি সপ্তাহে একবার কিংবা প্রটি মাসে একবার। আর শুধুমাত্র টেক নিউজগুলোর ইনস্ট্যান্ট আপডেটের জন্য টেকহাবস নিউজ তো আছেই। যাইহোক, আর কথা না বাড়িয়ে শুরু করা যাক এই সিরিজের প্রথম পর্ব, টেক রাউন্ডআপ-১ (জুন ২০১৮)।

বন্ধ হয়ে যাচ্ছে ইয়াহু মেসেঞ্জার

সেই ১৯৯৮ সাল থেকে শুরু হয় ইয়াহু মেসেঞ্জারের যাত্রা। আপনি যদি অনেক আগে থেকে ইন্টারনেট ব্যবহার করে থাকেন, তাহলে আপনি অবশ্যই একবার না একবার ইয়াহু মেসেঞ্জার ব্যবহার করেছেন কিংবা এটির কথা শুনেছন। ইয়াহু মেসেঞ্জার হচ্ছে অনেক আগে থেকে চলে আসা একটি মেসেঞ্জার যেটি বর্তমানে আর তেমন কেউ ব্যবহার করেনা বললেই চলে। ইন্টারনেট ইউজ করার শুরু করার প্রথম দিকে আমিও ইয়াহুর এই মেসেঞ্জার ব্যবহার করেছি এবং যথেষ্ট ভালো এক্সপেরিয়েন্স পেয়েছি। তবে বর্তমানে ইয়াহুর অন্যান্য সার্ভিস যেমন ইয়াহু সার্চ ইঞ্চিন, ইয়াহু মেইল এগুলোর মতো ইয়াহু মেসেঞ্জারও আক্ষরিক অর্থেই মৃতপ্রায়। এখন আর তেমন কেউই ব্যবহার করেনা বা করতে চায় না ইয়াহুর সার্ভিস।

মুলত এই কারনেই ইয়াহু সিদ্ধান্ত নিয়েছে তাদের এই মৃতপ্রায় মেসেঞ্জার সার্ভিসটিকে অফিশিয়ালি ডেড সার্টিফিকেট দিয়ে দিতে। অর্থাৎ, এটিকে অফিশিয়ালি বন্ধ করে দিচ্ছে ইয়াহু। আগামী ১৭ জুলাই তারিখে ইয়াহু মেসেঞ্জারকে সম্পূর্ণরূপে বন্ধ করে দিচ্ছে ইয়াহু। তবে যারা ইয়াহু মেসেঞ্জার এখনো ব্যবহার করতো, তাদের কথা চিন্তা করে নতুন একটি লাইভ গ্রুপ চ্যাটিং সার্ভিস এবং এই ধারনের নতুন কোন ফিচার নিয়ে আসতে পারে ইয়াহু।

২০১৯ সালে হতে যাচ্ছে ফোর্টনাইট ওয়ার্ল্ডকাপ

বর্তমানে অনলাইন ব্যাটেল রয়াল ভিত্তিক গেম, ফোর্টনাইট, পৃথিবীর সব গেমারদের মধ্যে সবথেকে জনপ্রিয় অনলাইন মাল্টিপ্লেয়ার গেমগুলোর মধ্যে অন্যতম। এপিকগেমস-এর তৈরি এই গেমটি গত বছর শেষের দিকে রিলিজ হওয়ার পরে এক বছর হতে না হতেই এর প্লেয়ারের সংখ্যা ১২০ মিলিয়ন ছাড়িয়েছে। আপনি যদি ব্যাটেল রয়াল গেম বা মেইনলি ফোর্টনাইট গেমার বা ফোর্টনাইট ফ্যান হয়ে থাকেন, তাহলে আপনি জেনে খুশি হবেন যে আগামি বছর প্রথমবারের মতো এপিকগেমস ফোর্টনাইটের একটি ওয়ার্ল্ডকাপের আয়োজন করছে যার প্রাইজ হিসেবে থাকছে ১০০ মিলিয়ন ইউএস ডলার।

এপিকগেমসের ভাষ্যমতে তাদের এই ওয়ার্ডকাপে সাড়া পৃথিবী থেকে ফোর্টনাইটের যেকোনো দেশের যেকোনো প্লেয়ার অংশগ্রহন করতে পারবে এবং উইনার হওয়ার যোগ্যতা রাখতে পারবে। এই ওয়ার্ল্ডকাপটি বেশ কয়েকটি ইভেন্টের মাধ্যমে শেষ করা হবে। তাই সম্পূর্ণ ১০০ মিলিয়ন প্রাইজ শুধুমাত্র একজন প্লেয়ারই পাবে এমন কোন কথা থাকবেনা। কয়েকটি সোলো ইভেন্ট এবং ডুয়ো ইভেন্টের মাধ্যমে কয়েকটি লেভেলে কয়েকজন করে উইনার নির্বাচন করা হবে এবং প্রাইজটি সব উইনারের মধ্যে স্প্লিট করে দেওয়া হবে।

এছাড়া স্কোয়াড ম্যাচের জন্যও আলাদা ইভেন্ট রাখতে পারে এপিকগেমস। এই ওয়ার্ল্ডকাপটির ফাইনাল ম্যাচ ফিফা কিংবা আইসিসি ওয়ার্ল্ডকাপের মতো এত জাঁকজমকপূর্ণ হবে কিনা জানা যায়নি, তবে আশা করা যায় এপিকগেমস বেশ বড়সড় করেই এই ওয়ার্ল্ডকাপটির আয়োজন করবে। এই ওয়ার্ল্ডকাপের কয়েকটি ইভেন্ট সাম্নের বছরের প্রথমদিকেই অনুষ্ঠিত হবে, তবে ফাইনাল ম্যাচটি ২০১৯ এর শেষের দিকে অনুষ্ঠিত হবে বলে জানিয়েছে এপিকগেমস।

অ্যাসুসের রগ গেমিং স্মার্টফোন

গত বছর শেষের দিকে রেজর তাদের তৈরি প্রথম গেমিং স্মার্টফোন, রেজর ফোন তৈরি করার পর থেকেই আরও অনেক মেজর স্মার্টফোন ম্যানুফ্যাকচারার আরও অনেক গেমিং স্মার্টফোন তৈরি করেছে। বর্তমানে স্মার্টফোনে নচের মতো গেমিং স্মার্টফোন তৈরি করাও স্মার্টফোন ব্র্যান্ডগুলোর কাছে একটি ট্রেন্ডের মতো হয়ে দাঁড়িয়েছে। সেই সুত্র ধরেই জনপ্রিয় ল্যাপটপ এবং স্মার্টফোন ম্যানুফ্যাকচারার অ্যাসুসও তৈরি করেছে তাদের নতুন গেমিং স্মার্টফোন , যার নাম রেখেছে ROG Phone। অ্যাসুসের গেমিং ল্যাপটপ লাইনাপের সাথে মিল রেখেই এই স্মার্টফোনটির নাম রাখা হয়েছে ROG যা Republic Of Gamers টার্মটিকে রিপ্রেজেন্ট করে। এই স্মার্টফোনটি অ্যাসুস এবছর কম্পিউটেক্স ২০১৮ ইভেন্টে অ্যানাউন্স করেছে।

এবছর রিলিজ হওয়া অন্যান্য ফ্ল্যাগশিপ স্মার্টফোনের মতোই হাই এন্ড স্পেসিফিকেশন থাকছে অ্যাসুসের রগ স্মার্টফোনে। স্ন্যাপড্রাগন ৮৪৫ প্রোসেসর, অ্যাড্রেনো ৬৩০ জিপিইউ এবং ৮ জিবি ডিডিআর৪ র‍্যাম এইসবকিছুই থাকছে অ্যাসুস রগ স্মার্টফোনে। তবে এই স্মার্টফোনের প্রোসেসরটিকে ওভারক্লক করা হয়েছে যাতে সেটি আরও ভালো পারফরমেন্স দিতে পারে। এছাড়া রগ ফোনে ব্যবহার করা হয়েছে ৯০ হার্জ রিফ্রেশ রেটের ডিসপ্লে যা ফোনের পারফরমেন্সকে আরও একটু ফাস্ট এবং স্মুথ ইফেক্ট দিতে সাহায্য করবে।

আরো পড়ুন:  ৫ টি বেস্ট ফ্রি উইন্ডোজ সফটওয়্যার! [২০১৮]

এছাড়া শাওমির ব্ল্যাক শার্ক গেমিং স্মার্টফোনের মতো এটির সাথেও একটি গেমিং ডক দেওয়া হয়েছে যা গেম খেলার সময় অনেকটা হ্যান্ডহেল্ড গেমিং কনসোলের মতো এক্সপেরিয়েন্স দিতে সাহায্য করবে। এছাড়া এই স্মার্টফোনটিতে অ্যাসুস একধরনের কুলিং সিস্টেম ব্যবহার করেছে যার নাম দিয়েছে ভেনম কুলিং যা স্মার্টফোনটিকে ঠান্ডা রাখতে সাহায্য করবে। তবে রিয়াল লাইফ ইউজেস অনুযায়ী যতদুর জানা যায়, এই স্মার্টফোনটি ইন্টেন্সিভ ইউজের সময় একেবারেই ঠাণ্ডা থাকেনা। এছাড়া এক্সট্রা ডিসপ্লে ডকের সাহায্যে এক্সটারনাল ডিসপ্লেতে কানেক্ট করে গেম উপভোগ করার সুবিধাও থাকছে।

ডুয়্যাল ডিসপ্লের ল্যাপটপ তৈরি করেছে অ্যাসুস

প্রথমবারের মতো এবছর কম্পিউটেক্স ২০১৮ ইভেন্ট অ্যাসুস তাদের নতুন জেনবুক প্রো অ্যানাউন্স করেছে যেটিতে থাকছে দুটি ডিসপ্লে। এই ল্যাপটপটির একটি প্রাইমারি স্ক্রিনের পাশাপাশি এটির টাচপ্যাডের জায়গায় টাচপ্যাডের পরিবর্তে আছে একটি সেকেন্ডারি ছোট ডিসপ্লে। এই ছোট ডিসপ্লেটি ল্যাপটপের ইউজারের প্রোডাক্টিভিটিকে বহুগুনে বাড়িয়ে দেবে, বিভিন্ন রকম এক্সট্রা ফিচারস দেওয়ার মাধ্যমে। যেমন, এই সেকেন্ডারি ছোট ডিসপ্লেটিতে ল্যাপটপের মেইন স্ক্রিনের যেকোনো অ্যাপ বা যেকোনো সফটওয়্যার পিন করে রাখা যাবে। যার ফলে টাচপ্যাডের জায়গায় ছোট কোন অ্যাপ রেখে আপনি ল্যাপটপের স্ক্রিনে আপনার প্রয়োজনমতো আরও অনেক কাজ করতে পারবেন।

যেমন- আপনি চাইলে আপনার প্রয়োজনীয় কাজ করার সাথে সাথেই আপনার ল্যাপটপের টাচপ্যাডের জায়াগায় ওই ছোট স্ক্রিনে একটি ভিডিও প্লে করে রাখতে পারবেন, চ্যাট করতে পারবেন ইত্যাদি অনেকধরনের কনভেনিয়েন্ট কাজ করে ফেলতে পারবেন এই সেকেন্ডারি ডিসপ্লের সাহায্যে। এছাড়া এই সেকেন্ডারি ডিসপ্লেতে আপনার ইচ্ছামত ইমেজ স্লাইডশো করে রাখতে পারবেন, ক্যালকুলেটর ব্যবহার করতে পারবেন এবং আরও অনেক ছোট ছোট বিল্ট ইন অ্যাপও ব্যবহার করতে পারবেন। এবং এই যেকোনো কাজ করার সময়ই এই সেকেন্ডারি ডিসপ্লেটি একটি ট্রেডিশনাল টাচপ্যাডের মতোও কাজ করবে। অ্যাসুস এই ল্যাপটপটি কম্পিউটেক্স ২০১৮ ইভেন্টে অ্যানাউন্স করেছে, তবে এখনো সাধারন কনজিউমারদের জন্য মার্কেটে এভেইলেবল করা হয়নি। তবে, আশা করা যায় খুব দ্রুতই এই ল্যাপটপটি বাজারে আনবে অ্যাসুস।

ভিভোর নতুন স্মার্টফোন ভিভো নেক্স

এবছরের শুরুর দিকে সিইএস ২০১৮ থকে শুরু করে মোবাইল ওয়ার্ল্ড কংগ্রেস এবং কম্পিউটেক্স ২০১৮ পর্যন্ত সব ইভেন্টই ভিভো তাদের অসাধারন নতুন সব স্মার্টফোনগুলো দিয়ে মাতিয়ে রেখেছে। পৃথিবীর প্রথম ইন-ডিসপ্লে ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সরযুক্ত স্মার্টফোন এবং ট্রুলি বেজেললেস স্ক্রিনের স্মার্টফোন ভিভো অ্যাপেক্স তৈরি করে খুব কম সময়ের মধ্যেই স্মার্টফোনপ্রেমীদের নজর কেড়েছে ভিভো। এবছর মোবাইল ওয়ার্ল্ড কংগ্রেসে ভিভো তাদের একটি কন্সেপ্ট ফোন শো অফ করে যেটির নাম দেওয়া হয়েছিলো ভিভো অ্যাপেক্স। তবে এই স্মার্টফোনটির শুধুমাত্র কয়েকটি ইউনিটই ভিভো তৈরি করেছিলো শুধুমাত্র শো অফ করার জন্য। তবে ওই স্মার্টফোনটি কখনোই মার্কেটে সাধারন কনজিউমারদের জন্য এভেইলেবল করা হয়নি।

তবে সেই স্মার্টফোনটির সুত্র ধরেই ভিভো অ্যানাউন্স করেছে তাদের নতুন স্মার্টফোন, ভিভো নেক্স। ভিভো নেক্স স্মার্টফোনটি ভিভো অ্যাপেক্সেরই ফাইনাল ভার্সন বলতে পারেন যা ভিভো মার্কেটে আনবে সেল করার জন্য। এই ফোনটির দুটি ভার্সন আনবে ভিভো। একটি হচ্ছে ভিভো এক্স এস এবং ভিভো নেক্স  এ। নেক্স এস স্মার্টফোনটিতে থাকবে মার্কেটের অন্যান্য টপ এন্ড ফ্ল্যাগশিপ স্মার্টফোনগুলোর মতোই স্পেকস। যেমন- স্ন্যাপড্রাগন ৮৪৫ প্রোসেসর, অ্যাড্রেনো ৬৩০ জিপিইউ এবং ৬/৮ জিবি র‍্যাম ইত্যাদি ইত্যাদি। আর ভিভো নেক্স এ স্মার্টফোনে থাকবে নতুন আপার মিডরেঞ্জ চিপ, স্ন্যাপড্রাগন ৭১০।

তবে স্পেসিফিকেশন এই স্মার্টফোনদুটির প্রধান আকর্ষণ নয়। ভিভো নেক্স স্মার্টফোনের স্ক্রিন তিনদিকে খুবই চিকন বেজেলযুক্ত (আইফোন এক্স-এর মতো)। তবে ভিভো নেক্স স্মার্টফোনটির ওপরে কোন নচ থাকছে না, যা এই স্মার্টফোনটিকে আরও বেশি ফিউচারিস্টিক লুক দেয়। এই ফোনটির ফ্রন্ট ক্যামেরার জন্য ব্যবহার করা হয়েছে একটি মোটরাইজড পার্ট যা ফ্রন্ট ক্যামেরাটি ব্যবহার করার সময় ফোনের ওপরের দিক থেকে একটি মোটরের সাহায্যে বেরিয়ে আসে এবং কাজ শেষে আবার ফোনের ভেতরে ঢুকে যায়। স্মার্টফোনের দুনিয়ায় এমন একটি ইনোভেটিভ ফিচার এই প্রথম ভিভো তাদের স্মার্টফোনে ইমপ্লিমেন্ট করলো। এছাড়া এই ফোনটিতেও থাকছে ইন-ডিসপ্লে ফিংগারপ্রিন্ট সেন্সর যা ফোনের ডিসপ্লের অনেকটা অংশজুড়ে কাজ করে।

তো এই ছিলো আজকের টেক রাউন্ডআপ। এইধরনের সব টেক নিউজগুলোর ইনস্ট্যান্ট আপডেটস পেতে চাইলে টেকহাবস নিউজ ভিজিট করতে ভুলবেন না। আর ভবিষ্যতে এই সিরিজটির প্রত্যেকটি আর্টিকেল সময়মতো পেয়ে যাবেন। এই সিরিজটির প্রত্যেকটি নতুন আর্টিকেল যদি প্রত্যেক মাসের পরিবর্তে প্রত্যেক সপ্তাহে পেতে চান, তাহলে নিচে কমেন্ট সেকশনে জানাবেন। তাহলে এরপর থেকে প্রত্যেক সপ্তাহের শুক্রবারে একটি করে সাপ্তাহিক টেক রাউন্ডআপ আর্টিকেল পাবলিশ করা হবে। আজকের মতো এখানেই শেষ করছি। আশা করি আজকের আর্টিকেলটিও আপনাদের ভালো লেগেছে। কোন ধরনের প্রশ্ন বা মতামত থাকলে অবশ্যই কমেন্ট সেকশনে জানাবেন।

Image Credit : Android Authority, Pexels

সিয়াম একান্ত

আমি সিয়াম। অনেক ছোটবেলা থেকেই প্রযুক্তির প্রতি আকর্ষণ এবং প্রযুক্তিকে ভালোবাসি। জীবনে টেকনোলজি আমাকে যতটা ইম্প্রেস করেছে ততোটা অন্যকিছু কখনো করতে পারেনি। তাই পড়াশুনার পাশাপাশি প্রায় অধিকাংশ সময়ই প্রযুক্তি নিয়ে সময় কাটাই। আশা করি এখানে আপনাদেরকে প্রযুক্তি বিষয়ক ভালো কিছু আর্টিকেল উপহার দিতে পারব।

6 comments

টেক নিউজ!

সবার আগে সকল সর্বশেষ প্রকাশিত টেক নিউজ গুলো চেক করুণ! স্মার্টফোন/গ্যাজেট রিলিজ, ইন্টারনেট নিউজ, টেক দুনিয়ার সবকিছুর সাথে থাকুন সর্বদা আপডেটেড!

সামাজিক মাধ্যম

সোশ্যাল মিডিয়া গুলোতে টেকহাবসের সাথে যুক্ত হয়ে সকল আপডেট গুলো সবার আগে পান!